Flash News
News add
News
Image

এপ্রিল থেকে ১৮ বার মৃদু কম্পনে কেঁপেছে দেশের রাজধানী!

News add

এপ্রিল থেকে ১৮ বার মৃদু কম্পন অভিজ্ঞতা করেছে দেশের রাজধানী। বেড়েছে আতঙ্ক। তাই এবার ভূমিকম্প নিয়ে প্রচার শুরু করেছে দিল্লি সরকার। পরিস্থিতির সঙ্গে আরও ভালো করে মোকাবিলার সাহা্য্যার্থেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য।

 

একটি বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, ঘরবাড়ি, অফিস, স্কুল, বাসভবন থেকে ব্যবসায়িক প্রতিটি জায়গা ভূমিকম্পের সঙ্গে মোকাবিলার যোগ্য করে তোলা হবে। শেষ কিছুদিনের অভিজ্ঞতা যথাযথ সময়ে পদক্ষেপ, প্রস্তুতি এবং সচেতনতার গুরুত্ব শিখিয়েছে।

 

২০২০ সালের এপ্রিল মাসের দিল্লির আসেপাশে ১৮টি মৃদু ভূমিকম্প হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এ কোনও বড়সড় ভূমিকম্পের ইঙ্গিত। উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলিতে ভূমিকম্পের ফলে জানা গিয়েছে, একের পর এক বাড়িতে বড় ফাটলের পাশাপাশি রাস্তাতেও বড়বড় ফাটল হয়েছে।

 

প্রসঙ্গত, জুনের ১৪ তারিখ থেকে ১৫ তারিখ অবধি তিনবার ভুমিকম্পে কেঁপে উঠেছে গুজরাত। ভূজ সিসমোলজি ডিপার্টমেন্ট সূত্রে খবর, বাছাউ অঞ্চলের ৬ কিলোমিটার উত্তর এবং উত্তর-পশ্চিমে ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল। তিনবার ভূমিকম্প ছাড়াও ১৫ বার আফটার শক বোঝা গিয়েছে গুজরাতে। ভূমিকম্পের ভয়াবহ স্মৃতি রয়েছে গুজরাতের। শেষবার ২০০১ সালে প্রবল ভূমিকম্প হয় সেই রাজ্যে। এছাড়া, ১৯৫৬ ও ১৯১৮ তেও ব্যাপক ভূমিকম্প হয় গুজরাতে।

 

২০০১ সালের ২৬ জানুয়ারি ৬.৯ মাত্রা কম্পন নয়, যা স্থায়ী হয়েছিল প্রায় ১০০ সেকেন্ড। কেঁপে উঠেছিল পাকিস্তান, বাংলাদেশ, নেপালও। এদিকে, দিল্লিতে দু’মাসে অন্তত ১২ বার ভূমিকম্প হয়েছে, যা অত্যন্ত উদ্বেগের। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এ কোনও বড়সড় ভূমিকম্পের ইঙ্গিত।

 

গত ২ বছরে ওই এলাকায় ৪ থেকে ৪.৯ মাত্রার ভূমিকম্প হয়েছে অন্তত ৬৪ বার। বিশেষত দিল্লি ও কাংরা অঞ্চলে এই কম্পন অনুভূত হয়েছে বারবার। কাংরাএ কাছে ধরমশালা ও চাম্বায় ৬.৩ ও ৭.৮ মাত্রার ভূমিকম্প হয়েছিল বহু বছর আগে, ১৯৪৫ ও ১৯০৫ সালে। দিল্লির মত জনবহুল জায়গায় এই ধরনের ভূমিকম্প মারাত্মক আকার ধারণ করতে পারে বলে জানিয়েছেন ওই অধ্যাপক। তিনি বলেন, ভূমিকম্প রুখতে যেসব নিয়ম মানতে হয়, তা না মেনেই একের পর এক ইমারত গড়ে তোলা হচ্ছে, আর তার ফলেই বাড়ছে ভয়।

 

দিল্লি থেকে হরিদ্বার পর্যন্ত অঞ্চলে এই ভূমিকম্পের প্রবণতা বেশি বলে জানিয়েছেন তিনি। ওই অঞ্চলে প্লেট সরছে বছরে ৪৪ মিলিমিটার করে, যা অত্যন্ত চিন্তার। যদিও এখনও পর্যন্ত ভূমিকম্পের পূর্বাভাস দেওয়া সম্ভব হয় না। সংগৃহীত........

News add
লাইফ স্টাইল