Flash News
News add
News
Image

করোনার হাত থেকে পরিবারকে বাঁচাতে এগুলি মেনে চলুন...

News add

এই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে আমরা প্রত্যেকেই নিজেরা সুস্থ থাকার পাশাপাশি আমাদের পরিবারকে সুস্থ রাখতে চাই। মহামারীর যে বিষাক্ত নিঃশ্বাস চারিদিকে ছড়িয়ে পড়েছে তার মধ্য থেকে সুস্থ থাকাটা খুব কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে কিন্তু তবে তা অসম্ভব নয়।

 

দিনে দিনে আক্রান্তের সংখ্যা এবং মৃত্যুর সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে এই রাজ্যে। এরমধ্যে ঘোষিত হয়েছে লকডাউন। যার কারনে মহামারীর দাপট অনেকটাই কমবে বলে ধারণা করা যাচ্ছে।

 

২০২০ সালের মতোই ২০২১ সালেও আমাদেরকে একই রকম ভাবে নিজেদের সুরক্ষা এবং পরিবারের সুরক্ষার কথা ভাবতে হবে। আপনাদেরকে জানানো হলো এমন কিছু সহজ বিষয় যা আপনারা মানতে পারেন এবং পরিবারের জন্য সুরক্ষা ব্যবস্থা নিতে পারেন। আমাদের প্রতিদিনের জীবন ধারার সঙ্গে  জড়িত এই বিষয়গুলি খুবই সাধারণ হলেও এই মুহূর্তে এই বিষয়গুলি আমাদের সুস্থ এবং মহামারী হাত থেকে মুক্ত রাখতে পারে।

 

১. স্যানিটাইজেশন: গত ২০২০ সাল থেকেই এই শব্দটির সঙ্গে আমরা সকলেই পরিচিত হয়ে পড়েছি। বাড়িতে করোনা আক্রান্ত রোগী থাকুক বা না থাকুক প্রতি সপ্তাহে একদিন করে পুরো বাড়ি স্যানিটাইজ করা ভাল। হাতের গ্লাভস এবং মাস্ক অবশ্যই পরে নেবেন বাড়ি পরিষ্কার করার সময়। বিশেষ করে এমন কিছু জায়গা যেগুলিতে প্রায় প্রত্যেকের স্পর্শ লাগে যেমন টেবিল, ড্রেসিং রুম, জানলার কোন, দেওয়াল সেগুলি ভালো করে স্প্রে করে দেবেন।

 

২. বিছানার চাদর: প্রতিদিন সম্ভব না হলেও সপ্তাহে অন্তত দু’দিন বাড়ির প্রতিটি ব্যক্তির ব্যবহৃত বিছানার চাদর পরিষ্কার করুন। পাশাপাশি বালিশের কভার এবং গায়ে দেওয়ার চাদর ও টিভির কভার, টেবিলের কভার, ভালো করে পরিস্কার করবেন। ল্যাপটপ বা কম্পিউটারের কভার থাকলে সেগুলোও ভালো করে ধুয়ে নেবেন।

 

৩. বাথরুম: একই বাথরুম পরিবারের সকলে এই সময় ব্যবহার করবেন না। যদি অন্য বাথরুম ব্যবহার করার সুযোগ না থাকে তবে প্রতিটি ব্যক্তি বাথরুমে প্রবেশের আগে ভালো করে সেখানে জল ঢেলে পরিষ্কার করে নেবেন। বাথরুমের দেওয়ালে সচরাচর হাত দেওয়ার চেষ্টা করবেন না। এছাড়াও বাথরুমের কমোড, ফ্লাশ, মগ, গামলা, বালতি এগুলি প্রায় প্রতিদিনই পরিষ্কার রাখার চেষ্টা করুন। সেই সঙ্গে সপ্তাহে একদিন স্যানিটাইজ করার ব্যবস্থা করবেন।

 

৪. ব্যবহৃত বস্তু: এই সময়ে আপনি যে জিনিসগুলি প্রতিদিন ব্যবহার করছেন সেগুলি পরিবারের থেকে আলাদা করে নেবেন এবং যারা ছোট সদস্য রয়েছে পরিবারে তাদের জন্য একেবারে আলাদা করে জিনিস গুলো রেখে দেবেন। এই জিনিসগুলোর মধ্যে পড়ছে ওষুধের বাক্স অক্সিমিটার থার্মোমিটার এমন কিছু জিনিস যা রোগী স্পর্শ করেছে। সংগৃহীত.......

News add
লাইফ স্টাইল