Flash News
News add
News
Image

নির্বাসন শেষ শান্তাকুমারন শ্রীসন্থের, এবার মাঠে নামার প্রস্তুতি!

News add

স্পট ফিক্সিং কান্ডে বিসিসিআই’য়ের সাত বছরের নির্বাসন শেষ হল শান্তাকুমারন শ্রীসন্থের। রবিবারই দক্ষিনী এই ফাস্ট বোলারের নির্বাসনের মেয়াদ শেষ হল। অর্থাৎ, সোমবার থেকে ফের বাইশ গজে প্রতিযোগীতামূলক ক্রিকেটে নামতে পারবেন দেশের হয়ে জোড়া বিশ্বকাপজয়ী দলের এই সদস্য।

 

নির্বাসন মুক্ত হয়ে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছেন শ্রীসন্থ। কিন্তু কোভিড আবহে তাঁর বাইশ গজে ফেরার রাস্তা খুব একটা সহজ হচ্ছে না। দেশের প্রথম সারির সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে নির্বাসন মুক্ত শ্রীসন্থ জানিয়েছেন, ‘আমি ফের স্বাধীন হয়েছি। ক্রিকেট খেলার স্বাধীনতা ফিরে পেয়েছি। এটা আমার জন্য বিরাট বড় মুক্তি। অন্য কেউ আমার অনুভূতিটা বুঝতে পারবে বলে মনে হয় না।’

 

একইসঙ্গে কোভিডের কারণে চলতি ঘরোয়া মরশুম ব্যাপকভাবে বিঘ্নিত হওয়ায় তাঁর বাইশ গজে ফেরা নিয়ে চিন্তিত দক্ষিনী পেসার। তাই শ্রীসন্থ বলছেন, ‘দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর আমি ফের ক্রিকেট খেলতে পারব কিন্তু দেশের মাটিতে এই মুহূর্তে ক্রিকেটে ফেরার পরিস্থিতি নেই। কোচিতে একটি স্থানীয় টুর্নামেন্ট আয়োজন করে আমি ক্রিকেটে ফেরার পরিকল্পনা নিয়েছিলাম। তবে সেই টুর্নামেন্ট আয়োজন ঘিরেও ঝুঁকি থেকে যাচ্ছে। কেরলে করোনাভাইরাসের প্রকোপ বেড়েই চলেছে।’

 

ক্রিকেটে ফেরার কথা মাথায় রেখে গত কয়েকমাস ধরে তিনি নিজেকে প্রস্তুতির মধ্যে রাখলেও সব দেখেশুনে পাকাপাকিভাবে ক্রিকেটকে বিদায় জানানোর কথাও নাকি ভেবেছিলেন শ্রীসন্থ। এ প্রসঙ্গে দেশের জার্সি গায়ে সবধরনের ফর্ম্যাটে ১৬৯ উইকেটের মালিক বলছেন, ‘গত মে মাস থেকে ক্রিকেটে ফেরার কথা ভেবে আমি অনুশীলনে নিজের সেরাটা দিয়ে এসেছি। কিন্তু যখন বিভিন্ন রিপোর্ট দেখে জানতে পারলাম চলতি মরশুমে দেশের মাটিতে আর ক্রিকেট চালু নাও হতে পারে তখন ভেঙে পড়েছিলাম। আমি ক্রিকেট ছেড়ে দেওয়ার কথাও ভেবেছিলাম। সংগৃহীত........

News add
লাইফ স্টাইল